শিরোনাম:
আশুলিয়ায় এক যুবকের অর্ধ-গলিত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। সাংবাদিকের ওপর সন্ত্রাসী হামলা করায় ৮ জনকে কারাগারে সাভার কেয়ার হাসপাতালে ভূল চিকিৎসার তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিককে হত্যার হুমকি নুসরাত হত্যা ওসি মোয়াজ্জেমকে রংপুরে বদলির প্রতিবাদে জুতা প্রদর্শন! আশুলিয়ায় বাড়িওয়ালার হাতুড়িপেটায় মা-মেয়ে গুরুতর আহত সাভারের আশুলিয়ায় মা মেয়ে সহ ৩ নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে ভন্ড পীর গ্রেপ্তার। প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া চাকরিতে যোগ দিলেন নুসরাতের ভাই পিবিআই’র আন্তরিকতায় শিল্পী হত্যার মূলরহস্য উৎঘাটন করতে পেরেছি: ইনস্পেক্টর সুরুজ উদ্দিন ফোন চুরি যাওয়ায় সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার! শমী কায়সারের পজেটিভ সংবাদ বর্জনের দাবি বিএমএসএফ’র বিদায় বেলায়ও মা-বাবাকে কাছে পেলেন না জায়ান সাভারে বিরল প্রজাতি গন্ধগোকুল উদ্ধার সেফাতউল্লাহ ওরফে সেফুদা’র বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আশুলিয়ায় এক নারীর মৃতদেহ উদ্ধার! আশুলিয়ায় যত্রতত্র বিক্রয় হচ্ছে বিপদজনক মেয়াদ উর্ত্তীণ গ্যাস সিলিন্ডার গার্মেন্টসকর্মী মাহাবুর হত্যার রহস্য উন্মোচন, চাপাইনবাগঞ্জ থেকে স্বামী-স্ত্রী গ্রেপ্তার ওসির অনুরোধে নুসরাত হত্যাকাণ্ডকে আত্মহত্যা বলে স্ট্যাটাস দেন সাংবাদিক নবম শ্রেণির পরীক্ষার প্রশ্নে সানি লিওন, মিয়া খলিফা! চট্টগ্রামে নুসরাত হত্যার দ্রুত বিচার দাবিতে বিএমএসএফ’র সমাবেশ জনপ্রিয়তার প্রতিহিংসায় ষড়যন্ত্রের কারাগারে সাবেক ভোলা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি- মোস্তাক শাহিন এক পিস জুতার অনুসন্ধানে খুনের অভিযোগে ৯ জনকে গ্রেফতার সাভার পুলিশ। সাংবাদিকের দিকে আঙ্গুল তুললে হাত ভেঙ্গে দেয়া হবে…বিএমএসএফ আশুলিয়ায় মটর শ্রমিক লীগের ব্যানার ছেরায় থানায় অভিযোগ। সাভারে জনসমুক্ষে যুবককে কুপিয়ে হত্যা, মরদেহ এনাম মেডিকেলে আশুলিয়ায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৮ ডাকাত আটক! সাভারে হত্যা করে গুমের তিনদিন পর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার ভাসমান লাশ উদ্ধার সাভারে গ্যাস সিলিন্ডারে ৪৬ হাজার ইয়াবা, আটক ২ ৩৯ লাখ টাকার ব্রিজ ব্যবহার করে একটি পরিবার! সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন নুসরাত হত্যাকাণ্ডে জড়িতরা বিন্দুমাত্র ছাড় পাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। অবৈধ গ্যাসলাইন কাটতে গেলে তদবির আসে : জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নুসরাতের জানাজার নামাজে লোকজন এর ঢল! বাবা নিজেই জানাজা পড়ান! আশুলিয়ায় সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা ! দু’সপ্তাহ আগেও আর দশজনের মতো হাসিখুশি ছিলেন নুসরাত জাহান রাফি। নুসরাতের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক ফেনীর সেই মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত মারা গেছেন ইনিউজ ডেস্ক সাংবাদিকরা সবচেয়ে জীবনের বেশি ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে থাকে! পাবনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র জমা দিয়ে ৬ শতাধিক চরমপন্থীর আত্নসমর্পন করবেন! রানা প্লাজার সোহেল রানার জামিন আবেদন খারিজ! আশুলিয়ায় দেওয়াল ধসের আতংকে এলাকা বাসি সাভারে এক নারীকে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে গন ধর্ষন, আটক ৫ দগ্ধ নুসরাতকে সিঙ্গাপুর নেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ভূমির ড্রেজিং করায় ১০০ একর জমি নদীর গর্ভে বিলীন!? সাভারে নারীর লাশের সঙ্গে ২ হাজার ৬০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার পরকীয়ার জেরে প্রবাসীর দাম্পত্যে আত্মহত্যা শেখ হাসিনার অঙ্গীকার ১০ টাকা ধরে পাবে চাউল। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন পাথালিয়া ইউনিয়নে চলছে মাদকের ছড়াছড়ি হামলার সময় হেলমেট পরার নির্দেশ দিয়েছিলেন নেতারা আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশনে ভর্তি দ্বায়িত্ব নিয়েছে শাকিলের যাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে তাকেই মেনে নিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য করুন জিএমপি’র কাশিমপুর থানায় কুখ্যাত মাদক সম্রাট আঃ জলিল ৬০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গ্রেফতার।। জিএমপি’র কাশিমপুর থানায় ইয়াবা সহ আটক-১।

বসন্তের ফুল

বসন্তের ফুল

ঋতুর রাজা বসন্ত কড়া নাড়ছে দরজায়। তাকে স্বাগত জানাতেই ফুলে ফুলে সেজে উঠতে শুরু করেছে প্রকৃতি। ফুলেদের রাজ্যে এখন ভরা মৌসুম। যেদিকেই চোখ যায়, শুধু নয়নাভিরাম ফুল আর ফুল। বসন্তের ফুল নিয়েই আমাদের আজকের ফিচার-

কৃষ্ণচূড়া
ফুলের জগতে কৃষ্ণচূড়ার মতো এমন উজ্জ্বল রঙের ফুল বেশ দুর্লভই বটে। বর্ষার শেষেও এই গাঢ় লাল- কমলা ফুলের রেশ শেষ হয় না। তবে শীতের হিমেল হাওয়ায় গাছটির পাতাগুলো ঝরে যায়। বসন্তে- গ্রীষ্মে গাছগুলো আবার ভরে ওঠে গাঢ় লালে- কমলায়।

চাঁপা
চাঁপা বা চম্পা ফুলটির নাম এসেছে সংস্কৃত ‘চম্পক’ থেকে। চাঁপা ফুলের গাছ চিরসবুজ। মানে গাছে সারা বছরই পাতা থাকে। পাতাগুলো লম্বাটে। আর ফুলের রঙ সাধারণত সাদা, কিংবা হালকা হলুদ, সোনালিও বলতে পারো। আর এই ফুলের যা সুন্দর গন্ধ! বসন্ত থেকে বর্ষাকাল পর্যন্ত চাঁপা ফুল ফোটার সময়। বসন্তকালেই সবচেয়ে বেশি ফোটে। তবে এক শীতকাল ছাড়া প্রায় সব সময়েই চাঁপা ফুল ফুটতে দেখা যায়।

কনকচাঁপা
এই ফুলের গাছটি ছোট বৃক্ষ জাতীয় গাছ। ফুলের মঞ্জরি ছোট ছোট, কিন্তু অনেকগুলো একসঙ্গে থাকে। পাতা যখন কচি থাকে, তখন রং থাকে তামাটে। কিন্তু পরিণত বয়সে পাতাগুলো গাঢ় সবুজ রঙের হয়ে যায়। তবে চাঁপা ফুল গাছের মতো সারা বছর গাছে পাতা থাকে না; শীতের শেষে পাতা ঝরে যায়। আর বসন্তে ফুলটির ঘন হলুদ সোনালি রঙের পাপড়ি আর তামা রঙের কচি পাতায় গাছের ডালপালা ছেয়ে যায়।

কাঁঠাল চাঁপা
এই ফুলের গন্ধটাই কাঁঠালের মতো। আর তাই ফুলটির নামই হয়ে গেছে কাঁঠাল চাঁপা। বিশেষ করে রাতের বেলায় ফুলটি গন্ধ ছড়ায়। আর ফুলটির রঙেরও একটা মজা আছে। ফুলটি প্রথমে থাকে সবুজ। পরে ক্রমেই হলদে রঙের হতে থাকে। আর ফুল যখন হলদে হতে থাকে, তখনই সুগন্ধ বের হয়। কাঁঠাল চাঁপা বর্ষাকালেও ফোটে ।

দোলনচাঁপা
দোলনচাঁপা আমাদের দেশের খুবই পরিচিত একটি ফুল। গাছের ডালের মাথায় থোকায় থোকায় সাদা রঙের বড় বড় দোলনচাঁপা ফোটে। তবে সব দোলনচাঁপাই সাদা হয় না; কোনো কোনো জাতের দোলনচাঁপা হলদে কি লাল রঙেরও হয়। মোটমাট দোলনচাঁপার প্রজাতির সংখ্যা প্রায় ৪০টি।

নয়নতারা
এই ফুলটি দেখতে বেশ অদ্ভূত, পয়সার মতো গোলাকার। আর তাই, গ্রামে এর একটা মজার ডাকনামও আছে- পয়সা ফুল। শুধু ফুলই না, এই গাছের পাতাও ডিমের মতো গোলাকার। আমাদের দেশে কয়েক প্রজাতির নয়নতারা দেখা যায়। কোনোটির রং সাদা, কোনোটির গোলাপি, কোনোটির আবার সাদার উপর গোলাপি, আবার কোনোটির রং হালকা নীল।

নাগেশ্বর
নাগেশ্বর বা নাগকেশর ফুলের রঙ সাদা। আর গোলাকার মুকুলের রঙ সবজে-সাদা। ফুলের পাঁপড়ির রঙ আবার দুধ-সাদা। ফুলটা যে শুধু দেখতেই সুন্দর, তাই না, বেশ সুগন্ধিও বটে। এই ফুল শুধু সুন্দরী আর সুগন্ধি-ই নয়, একইসঙ্গে বেশ কাজেরও বটে। এই ফুল থেকে যেমন সুগন্ধি আতর তৈরি হয়, তেমনি নানা রোগের চিকিৎসাতেও ব্যবহৃত হয়।

পলাশ
এই ফুলের আরো একটা নাম আছে- অরণ্যের অগ্নিশিখা। এই গাছের পাতা কিন্তু সারা বছর থাকে না। শীত আসলেই সব পাতা ঝরে গিয়ে গাছটি একেবারে ন্যাড়া হয়ে যায়। কিন্তু বসন্তকাল আসতে না আসতেই গাছটি গাঢ় লাল রঙের ফুলে ভরে ওঠে। পাতা জন্মানোর আগে, যখন কেবল ফুল ফুটতে শুরু করে, তখন পলাশ গাছ একদম লাল হয়ে যায়। আর ফুলগাছ হলেও গায়ে-গতরে পলাশ গাছ বেশ বড়োই। তখন মনে হয়, বনে আগুন লেগেছে। তাই পলাশকে বলে অরণ্যের অগ্নিশিখা। পলাশ ফুল দেখতে অনেকটা সীমফুলের মতো। ফুলের কুঁড়ি অনেকটা বাঘের নখের মতো, কিংবা বলতে পারো কাঁকড়ার পায়ের মতো দুই ভাগে বিভক্ত। পলাশও কিন্তু ঔষধি ফুল; মানে এই ফুলও নানা রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়।

বেলী ফুল
বেলী ফুলের গাছ বেশ ছোট; ঝোপের মতো। এ ধরনের গাছকে বলে গুল্ম। কোনো কোনো জাতের বেলী তো লতা জাতীয় গাছই। উজ্জ্বল সবুজ পাতার মাঝে সাদা রঙের থোকায় থোকায় ফুটে থাকা বেলী ফুল দেখতে যে কী সুন্দর, তা আর কী বলবো। বেলী ফুল মূলত ফাল্গুন থেকে জৈষ্ঠ্য মাস পর্যন্ত ফোটে। তবে বর্ষাকালেও এই ফুল ফুটতে দেখা যায়। মালা গাঁথায় এই ফুলের জুড়ি মেলা ভার! আর এই ফুলের গন্ধও দারুণ!

ভালো লাগলে অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করবেন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।




© All rights reserved © gtvbangla.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com